ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে চান ? ব্যবহার করুন এই প্যাক

ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখার জন্য আমরা নানা ধরনের দ্রব্য ব্যবহার করে থাকি। এই সব বাজার জাত দ্রব্য ব্যবহার না করে প্রাকিতিক উপাদানের উপর ভরসা রাখা ভালো। কারন আমাদের পরিবেশের দূষিত আবহাওয়া যেমন আমাদের ত্বকের ক্ষতি করে তেমনি বাজার জাত দ্রব্যেও মজুত থাকা রাসায়নিক দ্রব্য ত্বকের উজ্জ্বলতাও হ্রাস করে ফেলে। এর ফলে অল্প বয়সে আমাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা হারিয়ে যেতে থাকে ও বয়সের ছাপ পড়তে শুরু করে। এই কারনে প্রাকিতিক উপাদানের ব্যবহার করে ত্বকের যত্ন নেওয়া সবচেয়ে ভালো। প্রাকিতিক উপাদান দিয়ে কিভাবে প্যাক তৈরি করা যায় আপনারা দেখে নিন। এই প্যাক ব্যবহারে আপনার ত্বকের কোন ক্ষতি হবে না ও মুখে বয়সের ছাপ ও আসবে না।

১. ডাবের জল ও লেবু

আমরা ডাবের জল পান করে থাকি শরীর কে তাজা ও সতেজ রাখার জন্য, তেমনি ত্বককে সতেজ রাখতে ডাবের জল খুবই উপকারি।ডাবের জলে থাকা উপাদান ত্বককে সতেজ ও টানটান রাখে। তাহলে দেখুন এই ডাবের জল দিয়ে প্যাক তৈরি করা যায়। ১ টি মাঝারি সাইজের ডাব নিয়ে এর জলটি একটি পাত্রে নিতে হবে। আর এর সাথে নিতে ১ চামচ পরিমাণ লেবুর রস। এই দুটি উপাদান কে একসাথে মিশিয়ে নিতে হবে। এবার এই প্যাকটি তুলো দিয়ে মুখে লাগিয়ে নিতে হবে। লাগানোর পর ১৫ মিনিট রেখে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন এই প্যাকটির ব্যবহারে আপনার হারিয়ে যাওয়া ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে।

২. শসা ও টক দই

গরমে আমরা শসা ও দই বেশির ভাগ খেয়ে থাকি।এতে আমাদের শরীর ঠাণ্ডা থাকে। এই উপাদান গুলি ত্বকে ব্যবহার করলে খুব উপকার পাবেন। ১ টি শসা নিয়ে এর খোসা ছাড়িয়ে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। এবার এর সাথে ১ চামচ পরিমাণ টক দই নিয়ে ভালো করে মিসিয়ে নিতে হবে। এবার মিশ্রণটি ত্বকে হাল্কা ম্যাসেজ করে লাগিয়ে নিতে হবে। লাগানোর পর ২০ মিনিট রেখে দিতে হবে, ২০ মিনিট হয়ে গেলে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এর ব্যবহারে আপনার ত্বক ঠাণ্ডা থাকবে ও ত্বককে পরিষ্কার রাখবে।

৩. বেসন ও টমেটো

এই প্যাকটি তৈরি করার জন্য ১ টি পাকা টমেটো নিতে হবে। এবার টমেটো টি পেস্ট করে এর রস টি বের করে নিতে হবে। এবার এর সাথে ১ চামচ বেসন নিতে হবে। এই উপকরণ গুলি একসাথে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। এর সাথে অল্প পরিমাণ জল মিশাতে পারেন। এবার মুখে এই প্যাকটি লাগিয়ে নিন। ১৫ মিনিট রেখে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এই পেজ টি SHARE করুন:

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *