ত্বকের যত্নে নারিকেল তেল এর ব্যবহার

চুলের যত্নে আমরা নারিকেল তেল অনেক দিন থেকে ব্যবহার করে আসছি। নারিকেল তেল চুলের জন্য কতটা উপকারি একথা সবাই জানেন। কিন্তু ত্বকের যত্নেও যে নারিকেল তেল খুবই কার্যকরী একথা অনেকেরই অজানা। ত্বকের সুস্থতা ও সৌন্দর্যের জন্য নারিকেল তেল খুবই উপকারি। ত্বকের যত্নে সবচেয়ে সাধারণ নারিকেল তেলের থেকে এক্সট্রা ভার্জিন নারিকেল তেল বেশি উপকারি। এই তেল সাধারণ নারিকেল তেলের চেয়ে হালকা ও রিফাইন। এই তেল শুষ্ক ত্বকে ময়শ্চারাইজার হিসবে কাজ করে। তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক কিভাবে এই নারিকেল তেল ব্যবহার করা যায়।

১. নারিকেল তেল,দারুচিনি গুঁড়া

এই রেমিডির জন্য লাগবে ১ চামচ নারিকেল তেল ও ১ চামচ দারুচিনি গুঁড়া নিতে হবে। এবার দারুচিনি গুঁড়া আর নারিকেল তেল একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্টের মতো করে নিন। এবার এই পেস্ট টি আপনার ব্রণের উপর লাগিয়ে আধঘণ্টা রেখে দিন। আধঘণ্টা পর মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে তিনবার করতে হবে। নারিকেল তেল আর দারুচিনি, দুটি উপাদানেই অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণ রয়েছে যা ব্রণ কমাতে সহায়ক।

২. নারিকেল তেল,বেকিং সোডা

এই রেমিডির জন্য লাগবে ২ চামচ নারিকেল তেল ও ১ চামচ বেকিং সোডা। এবার বেকিং সোডা আর তেল একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্টের মতো করে নিতে হবে। এবার এই পেস্ট টি ব্ল্যাকহেডসের উপর লাগিয়ে হালকা হাতে মিনিট দশেক মাসাজ করুন। তারপর মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুইবার করলেই ব্ল্যাকহেডসের সমস্যা দুর হবে। এই ফেসমাস্কটি ক্লিনজারের মতো কাজ করে। ত্বকে জমে যাওয়া ধুলোময়লা ও মৃত কোষ সরিয়ে ও রোমছিদ্র পরিষ্কার করে ত্বক উজ্জ্বল করে তুলে।

৩. নারিকেল তেল, মধু, শিয়া বাটার

এই রেমিডি তৈরি করার জন্য লাগবে নারিকেল তেল,একটি পাত্রে ১ চামচ নারকেল তেল নিতে হবে, আর এর সাথে নিতে হবে ১ চামচ মধু ও ১/২ কাপ শিয়া বাটার। এই সব কটি উপকরণ কে নিয়ে একসাথে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। মিশানো হয়ে গেলে হাল্কা গরম করে নিতে হবে। গরম হয়ে গেলে নামিয়ে ঠাণ্ডা হতে দিন। ঠাণ্ডা হয়ে গেলে এই মিশ্রণ টি আপনার মুখে লাগিয়ে নিন। লাগানোর পর ২০ থেকে ২৫ মিনিট রেখে দিন। এরপর জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটির ব্যবহারে আপনার ত্বকে জমে থাকা পরিবেশের ধূলা ময়লা পরিষ্কার করবে ও আপনার ত্বক উজ্জ্বল ও ফর্সা করে তুলবে।

এই পেজ টি SHARE করুন:

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *